ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
ব্রেকিং নিউজ

নিউজ ডেস্ক

২২ নভেম্বর ২০২১, ১১:১১

ডিজেলের পর এবার বাড়লো মসলার দাম

22287_25.jpg
সংগৃহীত
চাল, ডাল, আটা, তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সব পণ্যের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এবার বাজারে বেড়ে গেল মসলার দাম। ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির পরপরই এই দাম বাড়তে শুরু করে। সপ্তাহের ব্যবধানে দেশে ভোগ্যপণ্যের বৃহত্তম পাইকারি বাজার চট্টগ্রামের খাতুনগঞ্জে দাম বেড়েছে অধিকাংশ মসলার। বেশি চাহিদার ৩টি মসলা জিরা, এলাচ ও বাদামের দাম সর্বোচ্চ ১০০ থেকে ১২০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বৃদ্ধি ও আসন্ন শীত মৌসুমের উৎসব অনুষ্ঠানকে ঘিরে এ দাম বেড়েছে। তবে ক্রেতারা বলছেন, ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির সুযোগকে কাজে লাগিয়ে অবৈধভাবে দাম বাড়িয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

খাতুনগঞ্জে এখন মানভেদে প্রতি কেজি ভারতীয় জিরার দাম চাওয়া হচ্ছে ৩১০ থেকে ৩২০ টাকা। ইরানী জিরা বিক্রি হচ্ছে ৪১০ থেকে ৪২০ টাকা। এক সপ্তাহ আগে এসব জিরার দাম কেজিপ্রতি ৫০ থেকে ৬০ টাকা কম ছিল বলে দাবি বিক্রেতাদের। দারুচিনি ২৯০ টাকা থেকে বেড়ে ৩০০ টাকা, লবঙ্গ ৮০০ টাকা এবং গোলমরিচ বিক্রি হচ্ছে ৫২৫ টাকা দরে। এলাচ বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৮৬০ টাকা দরে। এক সপ্তাহ আগে যা ছিলো ১ হাজার ৭৫০ টাকা।

কাজুবাদামের দাম বেড়েছে কেজি প্রতি ১১০ টাকা। এক সপ্তাহ আগে ৬২০ টাকায় বিক্রি হওয়া কাজুবাদাম বিক্রি হচ্ছে ৭৩০ টাকায়। কিসমিস বিক্রি হচ্ছে ২৬৫ থেকে ২৭০ টাকায়। এক সপ্তাহ আগে এসব কিসমিসের দাম কেজিপ্রতি ৫০ থেকে ৫৫ টাকা কম ছিল। ইসবগুল কেজিতে ৬০ টাকার বেশি। সরিষার দাম বেড়েছে কেজিতে ১০ টাকা।

খাতুনগঞ্জের ইসমাইল ট্রেডার্সের মালিক ও মসলা ব্যবসায়ী মো. সেকান্দার বলেন, "কিছুদিন আগেও মানভেদে জিরা কেনা যেত কেজিপ্রতি ২৮০ টাকা দরে, এরপর সেটা ৩৫০ টাকা হলো। এখন কিনতে হচ্ছে ৪২০ টাকা কেজি দরে। এলাচের দাম কেজিতে ১০০-১১০ টাকা বেড়েছে।"

প্রভাব খুচরা বাজারে
 
পাইকারি বাজারের সঙ্গে খুচরা বাজারেও মসলার দামে প্রভাব পড়েছে। খুচরাবাজারে এখন প্রতি কেজি এলাচের দাম মানভেদে ১ হাজার ৯০০ থেকে ২ হাজার টাকা। স্থানভেদে এটা কোথাও কোথাও ২ হাজার টাকার বেশিও বিক্রি হচ্ছে।

চট্টগ্রাম নগরের বহদ্দারহাট কাঁচাবাজারের ব্যবসায়ী নেজামত আলী জানান, মসলার মাত্র ৪০ শতাংশ ভোগ করে সাধারণ ক্রেতা। বাকি ৬০ ভাগের ভোগ হয়ে থাকে সাধারণত বিয়েশাদি, জন্মদিন, পিকনিকসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠানে। আসন্ন শীত মৌসুমে মসলার বাজারে স্থানীয় চাহিদা বেশি থাকায় দাম বেড়েছে।

তিনি জানান, বর্তমানে চিকন জিরা মানভেদে ৩২০ থেকে ৩৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কাজুবাদাম ও এলাচের দাম বেড়েছে সবচেয়ে বেশি। ৫৮০ টাকার কাজুবাদাম এখন ৬৮০ টাকা এবং এলাচ ১ হাজার ৭৮০ টাকা থেকে ১ হাজার ৮০০ টাকা পর্যন্ত।

এছাড়া খুচরা বাজারে কালোজিরা ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, এক সপ্তাহ আগে মাত্র ৪০ টাকায় বিক্রি হতো। কিসমিস ২১০ টাকা থেকে বেড়ে ২৪৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। চীনাবাদামের দাম বেড়েছে কেজিতে ৩০ টাকা। ৯০ টাকার সরিষা বিক্রি হচ্ছে ১২০ টাকায়।