ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
ব্রেকিং নিউজ

নিজস্ব প্রতিবেদক

২৪ নভেম্বর ২০২১, ১৫:১১

আমরা অতিরিক্ত নজরদারিতে বিশ্বাসী নয়: পরিকল্পনামন্ত্রী

22379_IMG-20211124-WA0016.jpg
মোবাইল ব্যাংকিং-এ আমরা অতিরিক্ত নজরদারিতে বিশ্বাসী নয়। এ ক্ষেত্রে কম্প্পানিগুলোকে স্বচ্ছতা বজায় রাখতে হবে বলেছেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

আজ বুধবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বাংলাদেশ উন্নয়ন পরিষদ আয়োজিত " importance of compliance in the mobile financial services (MFS) industry" শীর্ষক গোল টেবিল আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে একথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, মোবাইল ব্যাংকিং-এ বর্তমান ১০ কোটি একাউন্ট রয়েছে। যার ৪৭ শতাংশ ই নারী। যা আমাদের প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার নারীর ক্ষমতায়নের বহিঃপ্রকাশ। সকল ক্ষেত্রেই নারীর ক্ষমতায়নের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

মোবাইল ব্যাংকিং-এ অনেক ত্রুটি বা অস্বচ্ছতা রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার এ ক্ষেত্রে কঠোর নজরদারিতে বিশ্বাসী নয়। আমরা চাই সকলে ব্যাবসায়িক সচ্চতা বজায় রাখবে। গ্রাহকের অধিকার সংরক্ষণ করবে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামাল। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার অনীক আর হক। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলিকুজ্জামান আহমেদ। এছাড়াও সাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ উন্নয়ন পরিষদ এর নির্বাহী পরিচালক ড. নিলুফার বানু।

ব্যারিস্টার অনীক আর হক বলেন, বাংলদেশ ব্যাংকের অধীনে ২৮ টি কোম্পানির মোবাইল ব্যাংকিং লাইসেন্স রয়েছে। যার মধ্যে ২৭ টি ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান আর একটি ব্যাংকিং বহির্ভূত প্রতিষ্ঠান ছিল। বর্তমানে ১২ টি কোম্পানি ব্যাংকিং পরিচালনা করছে। যা শুরুতে ২০ টা কোম্পানি ছিল।

বর্তমানে ১০০ মিলিয়ন একাউন্টের বিপরীতে ২ হাজার কোটি টাকা লেনদেন হচ্ছে। এসময় মোবাইল ব্যাংকিং এর বিভিন্ন ঝুঁকির দিক তুলে ধরে ঝুঁকি হ্রাস করতে সিসিডি, ইডিডি স্ক্রিনিং নিয়মিত পরিচালিত হয়। একটি সহায়ক মডেলের অধীনে পরিচালিত এমএফএস প্রদানকারীদের তাদের নগদ ব্যালান্স এর কমপক্ষে ২৫ শতাংশ সরকারি সিকিউরিটিতে বিনিয়োগ করে নিরাপদ করার আহ্বান জানান।